অন্য-আমি

চালতাফুলের মত মুখখানা আমার দু’করতলে
ভালবাসার স্বপ্নবোনা – বুনোহাঁসের গ্রীবামূলে।
বেতফলের আদ্রতা আর গভীর মনের নয়নে
হাসিমাখা ঠোটদুটো যার হৃদয়জুড়ে সমর্পনে।
সকল জুড়ে তুমি আর সকল ক্ষণে তুমি-
এ কেমন পাগলামি বল – এ কেমন পাগলামি!

হাতছানি দেয় ছোট্ট কুটির আর আকাশ জোড়া
পূর্ণিমা ; হৃদয় চাহনি তে যেন পড়ে হৃদয়ের ই সাড়া।
ব্রীড়ানত চোখে তোমার ফুটে ওঠে সন্ধ্যাতারার ফুল-
ভালবাসার স্বপ্ন ছড়ায় জীবন নদীর দু’কূল।
সকল জুড়ে তুমি আর সকল ক্ষণে তুমি-
এ কেমন অন্তর্যামী তুমি – এ কেমন অন্তর্যামী!

হারাবার ভয় – এই বুঝি হারাল – জাগে হৃদয় মর্মরে
তোমার কথাই বাজতে থাকে মনে – অনুচ্চারে।
দিন নেই রাত নেই – রাতের চোখে ঘুম নেই
ফিরে ফিরে আস তুমি – বুজলে চোখ তুমিই সেই।
আমার সকল জুড়ে তুমি আর সকল ক্ষণে তুমি-
এ কেমন মাতলামি আমার – এ কেমন মাতলামি !

কবি হয়েছি বলেই কি লিখতে হবে
“আমি-তুমি” কিংবা “তুমি-আমি”
দিলাম ক্ষান্ত আজ হতে এইসবে -
কাল হতে জন্ম নিবে এক “অন্য-আমি”।